হলুদ ট্যাক্সি : বিশ্বদীপ দে

  ১ খুব ঝড়জলের রাতে, আকাশে বাঁকাচোরা বিদ্যুতের ন্যাড়া গাছ জন্ম নিলে আমি ট্যাক্সিটাকে দেখতে পাই। হলুদ রংয়ের। চালকহীন। সওয়ারিহীন তো বটেই। কেউ নেই। কেবল ট্যাক্সিটা। ফাঁকা। নির্জন। হলুদ। বৃষ্টির জল তার শরীর জুড়ে ঝরছে। ঝরে পড়ছে। কিন্তু তার হুঁশ নেই। বিষণ্ণ এক কিশোরীর মতো, Read More …

হলুদ ট্যাক্সি, স্মৃতির অছিলা : অনিমিখ পাত্র

  ‘সুখ নেইকো মনে / নেলকাটারটা হারিয়ে গেছে হলুদ বনে বনে’। মাঝেমধ্যে মনে হয়, স্মৃতির জ্যামিতি এঁকে খাতা ভর্তি করার জন্যই এই পায়ে পায়ে জীবনপথে এতদূর আসা। এই পা তোলা আর পা ফেলা। বর্ষায় উঠোন কাদা হয়ে গেলে, লাইন করে পাতা ইঁটের ওপর দিয়ে টালমাটাল হাঁটার মতন। মাথার Read More …

শিশা : জয়দীপ চট্টোপাধ্যায়

  ঘরের ভেতর নজরে পড়ার মত তেমন কিছু  নেই। নোনা ধরে ড্যাম্প দেওয়াল নীল রঙটা কোথাও গাঢ় নীল হয়ে গিয়ে মানচিত্র তৈরী করেছে। আবার কোথাও ক্যানভাসে অ্যাক্রাইলিকে আঁকা আধুনিক চিত্রকল্প। একটা স্টোভ, ফোল্ডিং খাট আর তার নিছে রাখা কিছু বাসন-পত্র, খাটের ওপরে একটা সস্তা ইয়ারফোন, Read More …

নীল কালির ছোপ : শুভাশিস রায়চৌধুরী

  রাত তখন সাড়ে এগারোটা ছাড়িয়েছে। বাড়ির দরজার বাইরে একটা প্লাস্টিকের চেয়ার পেতে মোড়ের মাথার দিকে ঠায় তাকিয়ে বসেছিল রতনলাল। সেই যে সকালবেলা ছেলেটা চড় খেয়ে বেরিয়েছিল, তখনও তার ফেরার নাম নেই। মোবাইল ফোনটাও সুইচ অফ করে রেখে দিয়েছে হতভাগা। স্বাভাবিকভাবেই তাই রতনলালের মনটা খারাপ Read More …

হলুদ ট্যাক্সির ডানা : শুভ্রদীপ চৌধুরী

    এক আমার মুখের সামনে বুম ধরে প্রশ্ন করছে একজন, অন্যজন ক্যামেরা ধরেছে। এসময় কাজ করতে হয়। ধরুন, প্রতিমার চোখ আঁকছি, রঙ করছি…  অন্তত হাতে তুলি কিংবা কায়েমকাঠি মাস্ট! মানে আপনি টিভি তে দেখবেন একজন শিল্পী তার কাজের ফাঁকে ফাঁকে কিছু বলছেন।কাজ বাদ দিয়ে Read More …

৩৪৬৯ : দেবজিৎ অর্ঘ্য মুখোপাধ্যায়

  ৩৪৬৯ : দেবজিৎ অর্ঘ্য মুখোপাধ্যায় চৌত্রিশ উনসত্তরের অলিখিত বাবা হলো মঙ্গল ঘোষ। মঙ্গল ঘোষ,বয়স-চুয়ান্ন।এই আধ কাঁচাপাকা মঙ্গল ঘোষের কে হয় এই চৌত্রিশ উনসত্তর? আলিপুরের কোন বন্দি কি এই পঞ্চাশ পেরিয়ে আরেকটু দুমড়ে যাওয়া মঙ্গল ঘোষের ছেলে-যার যাবজ্জীবন কারদন্ড হয়েছে? একদিন বাড়ি ফেরার পথে ডাস্টবিনের পাশ Read More …

গল্প : সাড়ে ছ’টার ক্যানিং লোকাল

  সাড়ে ছ’টার ক্যানিং লোকাল : রিমি মুৎসুদ্দি অন্ধকার রাস্তায় চলন্ত গাড়ীর আলো রাস্তাটাকে পিচ্ছিল করে দিচ্ছে। এগুলো বেশীরভাগই ট্যুরিস্ট গাড়ী। শীতকালেই যত ট্যুরিস্টদের আনাগোনা। সোঁদরবনের রাজার দেশে রোমাঞ্চের স্বাদ নিতে শহরের মানুষের এখন নিত্য যাতায়াত। হুশ করে চলে যাওয়া গাড়ীগুলোর চলন্ত আলোয় তরুবালার চোখ ধাঁধিয়ে Read More …

প্রবন্ধ : রামকৃষ্ণ ভট্টাচার্য সান্যাল

  ## HIজBজ   সব দেশেই মুখে মুখে গল্প বা ঘটনা বলার চল ছিল- এটা আপনারা সবাই জানেন । পরীর গল্প, রূপকথা, যুদ্ধের কথা, এ সবই মুখে বলার চল চলে এসেছে ।   বেদের অপর নাম – শ্রুতি । কারণ, বেশ কয়েক পুরুষ ধরে এই বেদের শ্লোকগুলো Read More …

অণু গল্প : রুমেলা দাস

  ## গতি টেবিলের উপর রাখা একটা রুপালি মোড়ক।কুঁকড়ে যাওয়া অংশটায় বাকি,কিছুটা সমান অংশ।বছর সত্তরের সুধাংশুবাবু হাত বোলাচ্ছেন তাতেই।পাশে জলখাবার আলুর চোখা আর রুটির কিয়দংশ।ভালোলাগেনা এই একই খাবার গিলতে।মুখে যে স্বাদ একেবারেই নেই। “ডোডোকে বলেছো আমার ওষুধ আনতে! কালকের দিনটা হবে শুধু। সন্ধ্যের পর থেকে Read More …

কবিতা : শতানীক রায়

  ## গাছ    গাছ সে তো গাছ, তাকে গাছের মতো থাকতে দাও, নয়তো পাতায় পাতায় ডালে ডালে গঙ্গা নামবে তীব্র হয়ে উঠবে কলমের দংশন। # শোক থেকে জন্মাবে বড় একটা মানুষ। তাহলে মানুষ কি এই গাছজন্মে নিজের জন্মের নাড়ি ছিঁড়ে ছিঁড়ে দেখবে আর বলবে– মাটি Read More …